সারাদেশ

আশুলিয়ায় গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে দগ্ধ নারীর মৃত্যু

  প্রতিনিধি ১৮ আগস্ট ২০২৩ , ২:০২:২৪

শেয়ার করুন

সাভার উপজেলা প্রতিনিধি-ঢাকার আশুলিয়ায় গ্যাস সিলিন্ডারের লিকেজ থেকে বিস্ফোরণে দুই নারীসহ ৬ জন দগ্ধ হয়েছিলেন। এ ঘটনায় সাবিনা বেগম (৪০) নামে এক পোশাক শ্রমিক মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) ভোর রাত ৪টার দিকে শেখ হাসিনা জাতিয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. তরিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, সাবিনার শরীরের ৫০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। বাকিদের মধ্যে চার জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের মধ্যে সাদিকুল ইসলামের শরীরের ৫০ শতাংশ, নজরুল ইসলামের ৪৫ শতাংশ, হাশেম আলীর ৪৫ শতাংশ, মো. হোসেনের ১০ শতাংশ এবং কমলা বেগমের শরীরের ২০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। গত ১২ আগস্ট রাতে রান্না ঘরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ওই ছয় জন দগ্ধ হন। ওই দিন রাতে তাদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনিস্টিউটে ভর্তি করা হয়।
দগ্ধরা হলেন, নাটোরের বড়ইগ্রামের মোতালেব হোসেনের স্ত্রী সাবিনা বেগম (৪০), প্রতিবেশী ভাড়াটিয়া মহসিন হোসেন (২৭) ও তার মা কমলা বেগম (৫০), ভেকু চালক নজরুল ইসলাম (৪৫), কারখানা কর্মচারী সাদেকুল (৩০) ও চাকরিজীবী মো. হাশেম মিয়া (৫০)।

ঘটনার পর তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া সাবিনার স্বামী মোতালেব হোসেন জানান, ধানসোনা ইউনিয়নের শ্রীপুর নতুননগর এলাকার শফিকের সেমিপাকা টিনশেড বাড়িতে পাশাপাশি ঘরে ভাড়া থাকেন তারা। রাত ৮টার দিকে তিনি বাইরে থেকে বাসায় ফিরছিলেন। কাছাকাছি পৌঁছলে বিকট শব্দ শুনতে পান। সাথে সাথে তিনি দৌড়ে গিয়ে দেখেন তাদের ঘরসহ পাশের কয়েকটি ঘরে আগুন জ্বলছে এবং প্রচণ্ড ধোঁয়া বের হচ্ছে। পরে অন্য ভাড়াটিয়াদের সাহায্যে কয়েকটি ঘর থেকে দগ্ধদের বের করে আনেন তিনি। এরপর স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে তাদের বার্ন ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাওয়া হয়। মোতালেব জানান, লাইনে লিকেজের কারণে টিনশেড ঘরগুলোয় গ্যাস জমে ছিল। সেখান থেকেই আগুনের ঘটনা ঘটে।

মোঃ আব্দুল কাদের


শেয়ার করুন