জাতীয়

বাবার খুনিদের ফাঁসিতে ঝুলতে দেখতে চাই-ডোরিন

  প্রতিনিধি ২২ মে ২০২৪ , ৯:৪০:১৭

শেয়ার করুন

ঝিনাইদহের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার খুনে জড়িতদের বিচার দাবি করেছেন তার মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস
ডোরিন। বুধবার দুপুরে ঢাকায় গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, আমি জেনেছি আমার বাবাকে হত্যা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই। সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চান, পুলিশ যে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে, তাদের তিনি চেনেন কি না। উত্তরে ডোরিন বলেন, আমি তাদের কাউকেই চিনি না। কিন্তু তাদের চিনতে চাই, জানতে চাই কেন তারা আমার বাবাকে হত্যা করলো। কাউকে সন্দেহ করছেন কি না এ প্রশ্নে এমপি আনারের মেয়ে বলেন, কাউকে আমি সন্দেহ করছি না। কিন্তু খুনিদের পরিচয় জানতে চাই। তারপর আমি আমার সন্দেহের কথা প্রকাশ করবো। সংসদ সদস্য আনারের দুই মেয়ের মধ্যে ডোরিন ছোট।

বড় মেয়ে চিকিৎসক, আর ডোরিন একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিষয়ে পড়ছেন। তিনি বলেন, সর্বশেষ বাবার সঙ্গে তার ভিডিও কলে কথা হয়েছিল। বাবা তাকে বলেছিলেন, তিনি দু’দিনের মধ্যেই ভারত থেকে ফিরবেন। তিনি ঢাকায় ফিরে তাকে দাঁতের ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাবেন। কাঁদতে কাঁদতে ডোরিন বলেন, ‘আমি এতিম হয়ে গেলাম। যারা আমার বাবাকে হত্যা করেছে, আমি তাদের বিচার চাই, ক্রসফায়ার কিংবা ফাঁসিতে ঝুলতে দেখতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার মায়ের মতো। তিনি অনেক সাহায্য করছেন আমাদের, তার কাছেও আমরা বিচারের আর্জি জানাই।
আনারের বাড়িতে সমর্থকদের ভিড়
আমিনুল ইসলাম লিটন, ঝিনাইদহ থেকে জানান, ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার নিহত হওয়ার খবর বুধবার সকালে তার নিজ নির্বাচনী এলাকায় পৌঁছালে আত্মীয়স্বজন ও দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। নেতাকর্মীরা ছুটে আসেন তার ভুষন পাইলট স্কুলপাড়ার বাড়িতে। আত্মীয়স্বজনদের পাশাপাশি অনেক নেতাকর্মীকে কাঁদতে দেখা যায়।
কালীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের নেতা মাসুদুর রহমান মন্টু বলেন, এটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। এ ঘটনার সঙ্গে আমাদের দেশের লোক জড়িত।
কালীগঞ্জের সাবেক পৌর মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বিজু জানান, আনার ভালোবাসা দিয়ে কালীগঞ্জের মানুষের মন জয় করেছিলেন। মানুষের দুঃখে ছুটে যেতেন। সেক্ষেত্রে তার কোনো রাতদিন ছিল না।
কালীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শিবলী নোমানী বলেন, এভাবে তাকে যে খুন করা হবে তা ভাবতেও অবাক লাগে। তাকে হারিয়ে আমরা মর্মাহত ও বাকরুদ্ধ। তিনি এই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করেন।


শেয়ার করুন